সড়ক দুর্ঘটনা রোধে চালক ও সার্জনদের ট্রাফিক আইন মেনে কাজ করতে হবে …………..রংপুর রেঞ্জ ডিআইজি

সড়ক দুর্ঘটনা রোধে চালক ও সার্জনদের ট্রাফিক আইন মেনে কাজ করতে হবে …………..রংপুর রেঞ্জ ডিআইজি

রংপুর 0 Comment

নিজস্ব প্রতিবেদক : পুলিশের রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক বিপিএম,পিপিএম বলেছেন, সড়ক দুর্ঘটনা রোধে চালক, পথচারী ও সার্জনদের ট্রাফিক আইন মেনে তাদের পেশাগত কাজ করতে হবে। ট্রাফিক আইন না মানা ও জানার কারনেই অনেক সার্জন সুযোগ বুঝে ট্রাফিক আইনের কথা বলে চালকদের কাছ থেকে অর্থ আদায় করে। তাই ট্রাফিক আইন মানা ও জানা চালকদের জন্য জরুরী।
বৃহস্পতিবার দুপুরে রংপুর পুলিশ লাইন্স স্কুল এন্ড কলেজ অডিটোরিয়ামে সড়ক দুর্ঘটনা রোধে চালক ও চালক সহকারীদের সাথে সচেতনতা মুলক মতবিনিময় সভায় তিনি একথা বলেন। রংপুরের পুলিশ সুপার মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এবিএম জাকির হোসেনের পরিচালনায় এসময় বক্তব্য রাখেন, কমিউনিটি পুলিশিং রংপুর জেলা ও বিভাগীয় সম্বনয় কমিটির সদস্য সচিব সাংবাদিক সুশাšত ভৌমিক,বাংলাদেশ রোড ট্র্সাপোর্ট অথরিটি- বিআটিএ রংপুর অফিসের সহকারী পরিচালক আব্দুল কুদ্দুস,রংপুর জেলা মোটর মালিক সমিতির যুগ্ম সম্পাদক আজিজুর রহমান রাজু,সাংবাদিক লিয়াকত আলী বাদল,আফতাব হোসেন,রফিক সরকার, মটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক সড়ক সম্পাদক রাজু আহম্মেদ, আওয়ামী মটর চালক লীগের রংপুর জেলা সাধারন সম্পাদক ফরহাদ হোসেন রিপন, চালক গোলাম মোস্তফা, মহানগর মটর চালক লীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম বরকা, প্রমুখ।
মতবিনমিয় সভায় ডিআইজি আরও বলেন, যদি কোন পুলিশ ট্রাফিক বা সার্জন কারো কাছ থেকে অন্যায়ভাবে অর্থ আদায় করে তাহলে আমাদেরকে জানাবেন। আমরা সাথে সাথে তার বিরুদ্ধে ব্যব¯’া গ্রহন করবো। তিনি বলেন, বাংলাদেশে সড়ক দুর্ঘটনার একটি বড় কারন ট্রাফিক ইঞ্জিনিয়ার না থাকা। পাশাপাশি সড়ক সেতু নির্মানের সময় ভালো ইঞ্জিনিয়ার দিয়ে ডিজাইন না করা। তিনি উদাহরণ দিয়ে বলেন, যমুনা ব্রীজ তৈরি করার সময় বাঁকে ফোরলেন করার ছিল। কিš‘ তা করা হয় নি। এজন্য সেখানে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনা ঘটছে। রিকশা চালকরা আইন না মেনে পার হওয়ার চেষ্টা করে, ড্রাইভাররা ফোনে কথা বলতে বলতে গাড়ি চালায় এবং অনেক সময় যাত্রীদের কথায় বিভ্রান্ত হয়ে ড্রাইভাররা গাড়ি চালায় এসব কারনেও দুর্ঘটান ঘটছে। চালকদের এ বিষয়ে সজাগ থেকে গাড়ি চালাতে হবে। তাহলে সড়ক দুর্ঘটনা কমিয়ে আনা সম্ভব। তিনি বলেন, আমাদের মন মানষিকতা এমন যে দুর্ঘটনার সাথে সাথেই আমরা গাড়ি ভাংচুর করি। আগুন লাগিয়ে দেই। অবরোধ করি। চালককের মারপিট করি। আমরা যাচাই করার চেষ্টা করি না। দোষটা কার। আমাদের এই মানসিকতা থেকে বেরিয়ে এসে ঘটনার গভীরে যেতে হবে। প্রকৃত অপরাধী ও অপরাধ চিহ্নিত করতে হবে। যাতে আর কোন দুর্ঘটনা না ঘটে।

Category: Product #: Regular price:$ (Sale ends ) Available from: Condition: Good ! Order now!

Author

Leave a comment

Back to Top

Show Buttons
Hide Buttons