ষড়যন্ত্রকারীদের দেশের মানুষ ভোটের মাধ্যমেই বিতারিত করবে

ষড়যন্ত্রকারীদের দেশের মানুষ ভোটের মাধ্যমেই বিতারিত করবে

জাতীয়, টেক, রংপুর 0 Comment

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন যারা আন্দোলনের নামে পুড়িয়ে হত্যা করেছে, পুলিশকে হত্যা করেছে, জঙ্গিবাদের মদদ দিচ্ছে, দেশের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্থ করছে তারাই সংসদ সদস্য মনজুরুল ইসলাম লিটনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। তাদের কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না। প্রশাসনকে এমপি লিটনকে হত্যাকারীদের খুজে বের করতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার রংপুর বিভাগের ৫ জেলায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস ও উন্নয়ন কার্যক্রম কিষয়ে সরাসরি সমাবেশে বক্তব্যে এসব কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া ঘরে বসে আন্দোলন নামে মানুষ হত্যার নির্দেশ দিচ্ছেন আর ওনার সন্তান দেশের টাকা চুরি করে সাজাপ্রাপ্ত হয়েও বিদেশের মাটিতে বসে দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত আছেন। তিনি বলেন যারা দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত আছেন তাদেরকে দেশের জনগণ ভোটের মাধ্যমেই বিতারিত করবে।

এসময় তিনি বলেন রংপুর বিভাগের উন্নয়ন কার্যক্রম এগিয়ে চলছে। ভারতের সাথে ছিটমহল বিনিময় সাফল্য বিশ্বের দরবারে প্রশংসিত হয়েছে। অচিরেই ঢাকা-পঞ্চগড় ট্রেন চালু হচ্ছে।
এসময় তিনি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিপুল সংখ্যক মানুষের সাথে কথা বলার ব্যবস্থা করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার রংপুর বিভাগের প্রায় ৩২ লক্ষ (সম্ভাব্য) মানুষের মাঝে বক্তব্য রাখেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে রংপুর বিভাগের ৮ জেলার মানুষের সাথে ভিডিং কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনি ৫টি জেলা সমাবেশে বক্তব্য রাখেন। ভিডিং কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনি জেলার বিভিন্ন সমস্যার কথাও শুনেন।
রংপুর বিভাগের ৬ হাজার ২’শত ৯৯টি স্থানে ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য প্রচার করা হয়। এছাড়া বিভাগের জেলা, উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়ন সহ বিভাগের সকল স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসায় প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য প্রচারের ব্যবস্থা করা হয়। বিভাগের ৫ জেলার ৫টি সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরাসরি বক্তব্য রাখেন। সকাল ১১টা থেকে বেলা দুপুর ১টা পর্যন্ত পর্যায়ক্রমে ৫ জেলার ৫টি মূল সমাবেশে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
রংপুরের জেলা স্কুল মাঠ, গাইবান্ধায় স্বাধীনতা প্রাঙ্গন, পঞ্চগড়ের বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম স্টেডিয়াম, কুড়িগ্রামে জেলা স্টেডিয়াম ও দিনাজপুরের বড় ময়দানে মূল সমাবেশে অনুষ্ঠিত হয়।
সমাবেশ ৫ জেলার জেলা প্রশাসক, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা, পুলিশ, শিক্ষক, ইমাম, কৃষক, শিক্ষার্থী, স্বাস্থ্য কর্মী, চা শ্রমিক বক্তব্য রাখেন।

Category: Product #: Regular price:$ (Sale ends ) Available from: Condition: Good ! Order now!

Author

Leave a comment

Back to Top

Show Buttons
Hide Buttons