রংপুরের তারাগঞ্জে ১২৭ কৃষকের মাঝে ধানের বীজ বিতরণ

রংপুরের তারাগঞ্জে ১২৭ কৃষকের মাঝে ধানের বীজ বিতরণ

রংপুর 0 Comment

তারাগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধিঃ তারাগঞ্জে আরডিআরএস এবং হারভেস্টপ্লাস বাংলাদেশ এর আয়োজনে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর (ডিএই) এর সহযোগিতায় ১২৭ জন কৃষকের মাঝে জিংক ধানের বীজ বিতরণ হয়। আজ মঙ্গলবার আলমপুর আরডিআরএস ফেডারেশনে বিকাল ৩টায় উপজেলার আলমপুর ইউনিয়নের কৃষকদের মাঝে বীজ বিতরন করা হয়।

নতুন জাত ব্রি ধান৭৪ এর বীজ ২২ জন এবং ব্রি ধান৬২  জন কৃষককে প্রদান করা হয়।  বীজ বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তারাগঞ্জ উপজেলার উপজেলা কৃষি অফিসার রেজাউল করিম, উপ-সহকারী কৃষি অফিসার হাজী মহসীন, আরডিআরএস এর রংপুর জেলার কৃষি অফিসার কৃষিবিদ শামীম আহমেদ, আলমপুর ইউনিয়ন ফেডারেশনের সভাপতি আলেমা বেগম প্রমুখ।  উল্লেখ্য যে, আরডিআরএস বাংলাদেশ ২০১৩ সাল থেকে হারভেস্টপ্লাস বাংলাদেশ এর সহযোগিতায় রংপুর বিভাগের বিভিন্ন জেলায় বোরো এবং আমন মৌসুমে জিংক  ধানের প্রদর্শনী বাস্তবায়ন করে আসছে। ব্রি ধান৭৪ একটি উচ্চ ফলনশীল জিংক ধানের জাত যার হেক্টর প্রতি গড় ফলন প্রায় ৭.১ টন (বিঘায় ২২-২৪ মণ), জীবনকাল ১৪৫-১৪৭ দিন। এতে প্রচুর পরিমানে জিংক বিদ্যমান (২৪.২ মি. গ্রাম/কেজি চাল)। জিংক মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা, বুদ্ধিমত্তা বিকাশসহ নানাবিধ শরীরবৃত্ত্বীয় প্রক্রিয়ার জন্য অত্যন্ত প্রয়োজন। প্রতিদিন আমাদের শরীরে প্রায় ১৬ মিলিগ্রাম জিংকের প্রয়োজন হয়। দেশের শতকরা ৫৭ ভাগের বেশী মানুষ বিশেষ করে নারীরা ও শিশুদের ক্ষেত্রে শতকরা ৪০ ভাগ জিংকের ঘাটতিতে রয়েছে। এ জাতের ধানের ভাত নিয়মিত খেলে মত উন্নয়নশীল দেশগুলোর দরিদ্র মানুষের দৈনিক জিংক চাহিদার কমপক্ষে শতকরা ৬০ ভাগ পূরণ করা সম্ভব হবে। জিংকের অভাবে শিশুদের স্বাভাবিক বৃদ্ধি ও মানসিক বিকাশ ব্যহত হয়, বিভিন্ন সংক্রামক ব্যাধি যেমন, ডায়রিয়া, নিউমোনিয়া, ম্যালেরিয়াতে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায়। এ ধানের জাত দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জিংকের অভাব জনিত অপুষ্টি লাঘবে টেকসই ভুমিকা পালন করতে সক্ষম হবে।

Category: Product #: Regular price:$ (Sale ends ) Available from: Condition: Good ! Order now!

Author

Leave a comment

Back to Top

Show Buttons
Hide Buttons