বাংলাদেশের জনগণের নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা; তার নেতৃত্ব এবং তার উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ!

বাংলাদেশের জনগণের নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা; তার নেতৃত্ব এবং তার উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ!

জাতীয়, ফীচার্ড 0 Comment

সাল ২০১০, ITU (International Telecommunication Union) এর সেমিনার এ ERICSSON এর বেশ কিছু পেটেন্ট প্রেজেন্টেশন ছিলো তার মধ্যে আমার ছোট্ট একটি প্রেজেন্টেশন ছিলো, আমি একজন বাঙালী হিসেবে বাংলাদেশের টেলিকমিউনিকেশন সেক্টর এবং তার সম্ভাবনা নিয়ে সামান্য আলোকপাত করি! একই বছর বাংলাদেশকে পুরস্কার দেওয়া হয় টেলিকমিউনিকেশনে সবচেয়ে হাই টেকনোলজি ব্যবহার করার জন্য!

আমার প্রেজেন্টেশন শেষে বেশ কয়েকজন চায়নিজ/চীনের ব্যক্তি এগিয়ে এলো, তাদের মধ্যে একজন সম্ভবত সাংগহাই টাওয়ার এর কর্ণধার কিংবা সেই গ্রুপের চেয়ারম্যান ছিলেন। কুশল বিনিময় হওয়ার মাঝেই বেশ কয়েকজন সাংবাদিক এগিয়ে এলো এবং তাদের মধ্যে একজন হলো বিখ্যাত সংবাদ অথবা অর্থনীতি সম্পর্কীয় ম্যাগাজিন “ইকোনোমিস্ট” এর সাংবাদিক!

আলাপচারিতার মাঝে একজন আমাকে বললেন, “Your country is heading towards big economy, Bangladesh will be an economic hub of South Asia in 15 to 20 years of time. China will go to your country with huge investment. China is planning to release 20% of garments sectors for their local market to other country but current infrastructure of Bangladesh garments industries not enough at all for even 10%.” (“তোমাদের দেশ অনেক বড় অর্থনৈতিক উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, আগামী ১৫-২০ বছরের মধ্যে বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার অর্থনৈতিক কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হবে। চীন অনেক বড় বিনিয়োগ নিয়ে যাবে বাংলাদেশে। চীন পরিকল্পনা করছে যে নিজেদের অভ্যন্তরীণ পোশাক বাজারের ২০% ছেড়ে দিবে অন্য দেশে। কিন্তু বাংলাদেশের বর্তমান গার্মেন্টস শিল্পের অবকাঠামো পর্যাপ্ত নয় এমনকি ১০% চাহিদা মেটানোর জন্য।”)

ইকোনমিস্টের সাংবাদিক সাথে সাথে প্রশ্ন ছুঁড়ে দিলেন, “So are you planning to transfer this 20% to Vietnam, Turkey or Bangladesh, obviously not India. If you are choosing Bangladesh, I have a say “how do you predict it will be fruitfull choosing Bangladesh when a country have many problems including natural disaster; most importantly worse political problems!” (“তাহলে আপনারা কি পরিকল্পনা করছেন এই ২০% কাজ ভিয়েতনাম নাকি তুর্কি নাকি বাংলাদেশ কে দিতে, অবশ্যই ভারতে নয়। আপনারা যদি বাংলাদেশকে নির্বাচন করেন তাহলে আমার কিছু বলার আছেঃ ” কিভাবে আপনারা ধারনা করেন যে বাংলাদেশ কে নির্বাচন করা ফলদায়ক হবে যখন দেশটিতে অনেক সমস্যা তার মধ্যে প্রাকৃতিক দুর্যোগ, বিশেষভাবে চরম রাজনৈতিক অস্থিরতা।”)

He replied, “political problem is not an issue at all as a big number of people, I repeat really a big numbers who watch what others do, because people doesn’t have work and they are being used for making political problems. And for natural disaster, you just cannot stop but you can fight to survive and sustain and Bangladesh is a very good example to handle this efficiently”. (তিনি বললেনঃ “রাজনৈতিক অস্থিরতা এটা কোন সমস্যা না যখন অনেক বড় জনসংখ্যা, আমি আবারও বলছি অনেক বড় জনসংখ্যা তাকিয়ে তাকিয়ে দেখে অন্যরা কি করছে! কারণ তাদের কোন কাজ নাই এবং এরাই রাজনৈতিক অস্থিরতা তৈরীর জন্য ব্যবহার হচ্ছে। আর প্রাকৃতিক দুর্যোগ এমন জিনিস না যে আপনি বন্ধ করে দিবেন, আপনি টিকে থাকার যুদ্ধ করতে পারেন এবং বাংলাদেশ হচ্ছে একটি বড় উদাহরণ যে অতি দক্ষতার সাথে নিয়ন্রণ করে যাচ্ছে।”)

তখন হাসতে হাসতে পাশ থেকেই আরেকজন বলে উঠলো, “Other day I was watching news and I have seen many people, about hundred are standing by a construction site and watching how backhoe loader excavator is used in the construction.” (একদিন আমি খবর দেখছিলাম এবং দেখি অনেক লোক, কমপক্ষে একশত লোক একটি নির্মাণাধীন প্রকল্পের পাশে দাঁড়িয়ে দেখছে মাটি খুঁড়ার যন্ত্র দিয়ে মাটি খুঁড়া হয়।”)

He again said, “Do you think you will find this people watching construction work if they would have work?, ‘NO’. In order to make political tensions thousands of people comes on the street as seen always. None of these people can be found on the street if they would have work.

Not only our investment, Chinese huge investment will also encourage to other countries to invest in Bangladesh.” (তিনি আরও বললেন, “আপনি কি মনে করেন এই সকল মানুষদের খুঁজে পাবেন যদি তাদের কাজ থাকতো? ‘না’। রাজনৈতিক অস্থিরতা সৃষ্টি করার জন্য হাজারো মানুষ দেখা যায় রাস্তায়, অথচ এদের কাউকেই খুঁজে পাওয়া যেতনা যদি তাদের কাজ থাকতো।

তিনি আরও সংযোগ করেন, কেবল আমাদের বিনিয়োগই না, চীনের এই বিশাল বিনিয়োগ অন্যান্য দেশেকেও বাংলাদেশে বিনিয়োগে উৎসাহিত করবে।”)

Then I asked him question, “How such all these big investments could be established in an effective way as of financial matters in order to build infrastructures? ” (এবার আমি প্রশ্ন করলাম, “কিভাবে সঠিকভাবে এই এতো বড় বিনিয়োগ স্থাপন করা যেতে পারে যখন অনেক অর্থের প্রয়োজন?”

Again he replied, “All we need land for all these infrastructure and support from the government without any hassle. If all these investments goes to Bangladesh, you will see every house will become a small-medium factory similar to our today’s China. During this development transition whoever in the government; the prime minister will be permanent in the power and will become a King or Queen of Bangladesh. I can see pretty much a democratic Kingdom like the United Kingdom.” (আবারও বললেন, “আমাদের কেবল ভূমির প্রয়োজন এই বিনিয়োগগুলোর জন্য এবং সর্বপোরি সমস্যা ছাড়াই সরকারের সহযোগিতা প্রয়োজন। আজকের চীনের মতো বাংলাদেশের প্রতিটি ঘর ছোট মাঝারি আকারের কল-কারখানা তে রূপান্তরিত হবে যদি এই বিনিয়োগগুলো বাংলাদেশে যায়। আর এই উন্নয়নের সময়ে যে সরকার ক্ষমতায় থাকবে তারা চিরস্থায়ী হয়ে যাবে এবং সেই সরকারের সরকার প্রধান হয়ে যাবে বাংলাদেশের রাজা কিংবা রানী। আমি দেখতে পাচ্ছি অনেকটাই যুক্তরাজ্যের মতো গণতান্ত্রীক রাজ্য।”

তারই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি চীনের রাষ্ট্রপ্রধান বাংলাদেশ সফরের সময় এযাবতকালের সবচেয়ে বড় বিনিয়োগ নিয়ে এসেছে, তারই ধারাবাহিকতায় চীন এবং জাপান কে ৭০০ একর করে জমি বরাদ্দ দেয়া চট্টগ্রামের অর্থনৈতিক এলাকায়, তারই ধারাবাহিকতায় বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশের ব্যাপক অর্থনৈতিক উন্নয়ন, জিডিপি বেড়ে গিয়ে দাঁড়িয়েছে শতকরা ৭ এর উপরে। সক্ষমতা হয়েছে নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতুর মতো বড় মাপের প্রকল্প বাস্তবায়ন করার! বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশের দিকে ক্রমশঃ অগ্রসর হচ্ছে! বাংলাদেশ তথ্যপ্রযুক্তিসহ সবগুলো খাতেই ব্যাপক উন্নয়ন করে উন্নত বিশ্বের নজর কাড়ছে! বাংলাদেশ আজ জাতিসংঘের অনেকগুলো সেক্টরে নেতৃত্ব দিচ্ছে। বিশ্বের উন্নত দেশগুলোর কাছে আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আইকনে পরিণত হয়েছে বিশেষ করে জলবায়ু পরিবর্তনের মোকাবেলাসহ নারীর ক্ষমতায়ন বাস্তবায়নে। গোটা বিশ্বের নজর এখন বঙ্গপোসাগরের কোল ঘেষা এক টুকরো স্বর্গের দিকে। সকল দেশের রানী আমার বাংলাদেশের জনগণের নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং তার নেতৃত্ব এবং তার উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ!

 

সৈয়দ মিজানুর রহমান
স্বত্বাধিকারী ও সিইও
গ্লোবাল ইন্টারেকশন লিমিটেড
যুক্তরাজ্য

 

সিনিয়র ডেভেলপমেন্ট ইঞ্জিনিয়ার
এরিকসন
যুক্তরাজ্য

Category: Product #: Regular price:$ (Sale ends ) Available from: Condition: Good ! Order now!

Author

Leave a comment

Back to Top

Show Buttons
Hide Buttons