ফুলবাড়ীতে তুলার বাম্পার ফলনে মুখে হাসি চাষীদের

ফুলবাড়ীতে তুলার বাম্পার ফলনে মুখে হাসি চাষীদের

কুড়িগ্রাম 0 Comment

সাইফুর রহমান শামীম, জেলা প্রতিনিধি (কুড়িগ্রাম) : কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলায় তুলার বাম্পার ফলনে চাষীদের মুখে হাসি ফুটেছে। প্রতি বছর তুলা চাষে তাদেরকে ক্ষতির সম্মুক্ষিণ হতে হয়। চলতি বছর সরকার চাষীদের বিভিন্ন প্রণোদনা প্রদান করে। এছাড়াও অনুকূল পরিবেশ, পরিচর্যা এবং ভাল বীজের কারণে মাঠ জুড়ে তুলার বাম্পার ফলন হওয়ায় আশাবাদি হয়েছে কৃষক।
জানা যায়, সরকারিভাবে চলতি বছর ফুলবাড়ী উপজেলার ৬ ইউনিয়নে তুলা চাষের উদ্যোগ গ্রহন করা হয়। এ লক্ষ্যে উপজেলা তুলা উন্নয়ন অধিদপ্তর ১৬০ হেক্টর জমিতে তুলা চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে। সে মোতাবেক প্রণোদনা হিসেবে ৪১০ জন কৃষককে প্রশিক্ষণ পরবর্তী দেয়া হয় বিনামূল্যে সার, বীজ ও কীটনাশক। চাষের পরপরই বন্যা ও অতিবৃষ্টির কারণে বিপাকে পড়ে কৃষক। এসময় প্রয়োজনীয় পরামর্শের ফলে ক্ষতি কাটানো সম্ভব হলেও প্রায় ৫০ হেক্টর জমির বীজ নষ্ট হয়ে যায়। চাষীরা আষাঢ় মাসে তুলা রোপন করেন এবং চৈত্র মাসে কাঁটামাড়াই শেষে ফসল ঘরে তুলতে পারেন।
উপজেলার বালাটারী গ্রামের তুলাচাষী আবু তালেব (৫৬), দুদুল মিয়া (৩৬) ও কুরুষা ফেরুসা গ্রামের আকবর আলী (৪৫) জানান, আগে তুলা চাষ করে আমরা অনেক লোকসানে পড়েছি। কিন্তু এ বছর প্রশিক্ষণ ও সরকারি সুবিধাদি পাওয়ায় তুলার সঠিক পরিচর্যা করা সম্ভব হয়েছে। বর্তমানে ক্ষেতের যে অবস্থা আছে তাতে বিঘাপ্রতি ১০/১২ মন ফলন আশা করা যায়।
এ ব্যাপারে উপজেলা তুলা উন্নয়ন কর্মকর্তা লুৎফর রহমান জানান, প্রাকৃতিক দুর্যোগ বা কোন ধরণের আপদ না হলে এখন পর্যন্ত এ উপজেলায় তুলার বাম্পার ফলন আশা করছি। কৃষকরা যাতে উৎপাদিত তুলার ন্যায্য মুল্য পায় সেজন্য সরকারিভাবে তুলা ক্রয়ের ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Category: Product #: Regular price:$ (Sale ends ) Available from: Condition: Good ! Order now!

Author

Leave a comment

Back to Top

Show Buttons
Hide Buttons