নবাবগঞ্জে করতোয়া নদীতে বীজতলা তৈরি করছে কৃষক

নবাবগঞ্জে করতোয়া নদীতে বীজতলা তৈরি করছে কৃষক

দিনাজপুর 0 Comment

সুলতান মাহমুদ, নবাবগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : দিনাজপুুরের কৃষি ফসল সমৃদ্ধি উপজেলার নাম নবাবগঞ্জ। উন্নত জাতের আম, লিচু ফল উৎপাদন আর আমন, ইরি-বোরো ফসল উৎপাদনের উর্বর ভূমি নবাবগঞ্জ। এর বাস্তব দৃষ্টান্ত এক নজর না দেখলে বোঝা যাবে না। ইরি-বোরো চাষের সাথে জড়িত থাকা কৃষকেরা জানায় স্থানীয় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের প্রযুক্তিভিত্তিক প্রশিক্ষণ আর বাস্তব দিকনির্দেশনা নিয়ে কৃষি ফসল উৎপাদনে ক্রমশ দিন দিন বেড়েই যাচ্ছে। সরকারের কৃষি বান্ধব বিভিন্ন কর্মসূচি সফল ভাবে বাস্তবায়িত হচ্ছে এ অঞ্চলে। নদী, পুকুর এ কর্মসূচির আওতা থেকে মুক্ত নয়। উপজেলার ২নং বিনোদনগর ইউনিয়নের কাঁচদহ করতোয়া নদীতে ড. ওয়াজেদ মিয়া সেতুর উত্তর-দক্ষিণ নদীর বালুচরে কৃষকেরা তৈরি করেছে ইরি-বোরো রোপণের বীজতলা। নদী থেকে পাওয়া যাবে দেশের হারিয়ে যাওয়া মাছ। আমিষের ঘাটতি পূরণ করবে মানুষের। আর নদীর জমে থাকা পানি শুকনো মৌসুমে সেচের মাধ্যমে ফসল উৎপাদন করবে কৃষক। এখন এই তিনটির মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয় নদী। কৃষকেরা শুকনো মৌসুমে মাছ শিকারের পরিবর্তে এখন করতোয়ার বুকে শোভা পাচ্ছে সোনালী ফসল উৎপাদনের ধান আবাদের বিস্তর সবুজ দৃশ্যের স্পট বীজতলা। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ওই এলাকার হতদরিদ্র শ্রেণির কৃষকেরা যাদের বীজতলা তৈরি উপযুক্ত জমি নেই তারা স্থান নিয়েছে বালুচর নদীতে। কৃষক আবুল খায়ের, আব্দুস সাত্তার, শরিফুল ইসলাম, জয়নাল আবেদীন তারা জানান, বীজ তুলে নেওয়ার পর বর্ষা মৌসুমে নদী ভরে যাবে। তারা এ সময়টায় কাজে লাগাচ্ছে। এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবু রেজা মো. আসাদুজ্জামান জানান, এমন উদ্যোগ ভাল। পড়ে থাকা জমিতে বীজতলা তৈরি করছে কৃষক। বীজগুলো গুণগত ও মানসম্মত তৈরির জন্য প্রতিটি ইউনিয়নের উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তারা সার্বক্ষণিক পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন।

Category: Product #: Regular price:$ (Sale ends ) Available from: Condition: Good ! Order now!

Author

Leave a comment

Back to Top

Show Buttons
Hide Buttons